Facebook Tips

অটো লাইক কি ? ফেসবুকে অটো লাইক নেওয়ার সুবিধা ও অসুবিধা নিয়ে বিস্তারিত জানুন ।

অটো লাইক নেওয়ার অসুবিধা
101views

আসসালামু আলাইকুম,

বর্তমানে ফেসবুক সহ বিভিন্ন মানুষ সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করছে তাদের আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বাদ্ধবী দের সাথে যুক্ত থাকতে । আবার অনেকেই আছে যারা ফেসবুক ব্যবহার করে ঠিকই কিন্তু লাইক কমেন্ট না পাওয়ার কারণে পদ্ধতি খুঁজতে থাকে যে কিভাবে বেশি লাইক-কমেন্ট পাওয়া যাবে ফেসবুকে । এই বেশি লাইক পাওয়ার চিন্তার বা ফেমাস হওয়ার জন্য বা কোন কারণে লাইক বেশি নেওয়ার পদ্ধতি খুঁজতে খুঁজতে , অনেকেই হয়তো অটোলাইক শব্দ টি শুনেছেন ।

আবার অনেকেই  ব্যবহারও করছেন কিন্তু এর সম্পর্কে বিস্তারিত জানেন তাদের জন্য কিছু কথা এই পোস্টে আলোচনা করব ।  তো আজ আমরা অটো লাইক কি ? ফেসবুকে অটো লাইক নেওয়ার সুবিধা ও অসুবিধা ,  অটোলাইক সাইট গুলো কিভাবে কাজ করে  ইত্যাদি ।

অটো লাইক কি ?

আমরা জানি অটো ( Auto )  শব্দের অর্থ হলো সক্রিয় অর্থ্যাৎ নিজে থেকে কোন কাজ সংগঠিত হওয়ার বুঝায় ।  অটো লাইক বা অটো কমেন্ট বা অন্য কিছু নেওয়ার এমন একটি সিস্টেম যার মাধ্যমে আপনি সহজের আপনার ফেসবুক আইডিতে অনেক লাইক,কমেন্ট,ফলোয়ার ইত্যাদি নিতে পারবেন । শুধু তাই নয় এখন ফেসবুক ছাড়া আরো সব সোশ্যাল মিডিয়া তে অটো সিস্টেম দ্বারা লাইক কমেন্ট নেওয়ার যায় । সবচেয়ে মজার বিষয় হলো এই গুলো তে আপনাকে কারো কাছে গিয়ে বলতে হবে না ভাই লাইক-কমেন্ট ইত্যাদি করেন ।

অটো লাইক কিভাবে কাজ করে ?

অটো লাইক বা অটো কমেন্ট বা অন্য কিছুর নেওয়ার কাজ সম্পন্ন করতে একটা মাধ্যমের প্রয়োজন হয় সেই মাধ্যমগুলো হতে পারে কোন ওয়েবসাইট বা কোন অ্যাপ । বিভিন্ন ওয়েব সাইট ও অ্যাপ আছে যেখানে আপনি তাদের লিমিট বা আনলিমিটেড অনুযায়ী লাইক , কমেন্ট , ফলোয়ার ইত্যাদি নিতে পারবেন এবং সেখানে কিছু নিয়ম থাকে ।

এইসব অটো লাইক সাইট বা অ্যাপ গুলো তে তাদের ইউজারের উপর ভিত্তি করে আপনাকে লাইক কমেন্ট নিতে দেয় । কারণ তাদের সাইট ব্যবহারকারী রা একে অপরের মধ্যে সব লাইক , কমেন্ট ইত্যাদি আদান প্রদান করে ।  কি বুঝেন নি তো ? ধরুন একটি ওয়েব সাইট আছে যারা এই অটোলাইক সিস্টেম টা সাপোর্ট করে এবং আপনাকে অটোলাইক কমেন্ট ইত্যাদি নিতে সহয়তা করে এখন এই ওয়েব সাইটে যতজন এই সাইট ব্যবহার করছে আপনি সহ ।

তখন যদি কেউ ওয়েবসাইট বা অ্যাপ টি ব্যবহার করে অটো লাইক বা অন্য কিছু নেওয়ার আবেদন করে তখন ওয়েব সাইটের যতজন ইউজার আছে এর লাইক চলে যাবে ঐ ব্যক্তির ফটো তে । যদি ওয়েব সাইট বা অ্যাপ টি তে ব্যবহার কারী থাকে ১০০ জন তাহলে আপনি ঐ এক জনের লাইক পাবেন অটো লাইক রিকুয়েস্ট দিলে । এভাবে ওয়েব সাইট গুলো একে অপের মধ্য অটো লাইক আদান-প্রদান করে যা ইউজার জানতে ও পারে না ।

কোথায় থেকে অটো লাইক নিবেন ?

অটো লাইক নেওয়ার অনেক গুলো ওয়েব সাইট অ্যাপ রয়েছে যাদের মাধ্যমে আপনি ফেসবুকে অটো লাইক সহ কমেন্ট , ফলোয়ার নিতে পারেন ।  আপনি যদি গুগল গিয়ে Best Auto Liker Site লেখে সার্চ করেন তাহলে অনেক গুলো সাইট পাবেন তাদের মধ্যে একটি ব্যবহার করতে পারেন ।

কতটা অটো লাইক পাওয়ার যায় ?

আগেই উপরের লেখার বলছি আপনি কত লাইক পাবেন সেটা নির্ভর করে ঐ ওয়েবসাইটের ইউজারের উপর এবং সাইটের উপর তারা কত লাইক নেওয়ার সুযোগ দিচ্ছে । সেটা হতে ১০০ লাইক ,২০০ লাইক , ৫০০ লাইক বা ১০০০ লাইক ।

অটো লাইক নেওয়ার সুবিধা !
  1. দ্রুত বেশি লাইক পাওয়া যায় ,
  2. বেশি ফ্রেন্ড থাকার প্রয়োজন নাই ,
  3. অটো লাইক আপনার ফ্রেন্ড থাকার তুনলায় অনেক বেশি পেতে পারেন । এছাড়াও আরো কিছু আপনি জানেন কেন অটো লাইক নিবেন ।
অটো লাইক নেওয়ার অসুবিধা ?

অটো লাইক নেওয়ার সুবিধা থেকে অসুবিধা ই বেশি বলে আমি মনে করি । অসুবিধাগুলোঃ-

১) যেহেতু যে সাইট থেকে আপনি লাইক নিচ্ছেন সেই সাইটের ইউজার দের মধ্যে লাইক আদান-প্রদান হয় । সেহেতু     কেউ যদি কোন খারাপ পোস্ট বা অন্য কিছু জাতীয় পোস্ট করে তাহলে সেইখানে আপনার লাইক চলে যাবে এক্ষেত্রে  আপনি বুঝতে পারছেন কি হতে পারে ।

২) আপনি যদি বেশি বেশি অটোলাইক নেন তাহলে আপনার আইডি ফটো বা অন্য কোন ভেরিফিকেশন পরতে পারে ।

৩) অটো লাইক বা কমেন্ট যেকোন সময় , যেকোন ধরনের পোস্টে চলে যেতে পারে।

৪) আপনার আইডি তে বিভিন্ন অকারণে নোটিফিকেশন আসতে থাকবে । আমরা জানি যে কারো পোস্ট কমেন্ট করলে তার পোস্ট অন্য কেউ কমেন্ট করলে তার নোটিফিকেশনা আসতে থাকে।

৫) এছাড়া আরো অন্য সমস্যা হতে পারে , আপনি যদি এই সব নিয়ে চলতে চান তাহলে লাইক নিতে পারেন সেটা আপনার ব্যাপার । কিন্তু আমার মতে অটোলাইক বা কমেন্ট বা ফলোয়ার না নেওয়া ভালো যেটা কোন রিয়াল না যার কোন ভ্যালু নাই ।

আপনার ফ্রেন্ড রা লাইক কমেন্ট করলে তার একট ভ্যালু আছে কিন্তু অটো যেটা নিচ্ছেন সেটা মানুষ কে দেখানো ছাড়া আর কোন কাজ নেই ।

উপরের আমি যা জানি যত টুকু জানি তা বুঝানোর চেষ্টা করলাম আশা করি বুঝতে পেরেছেন ।

আরো পড়ুনঃ

ফ্রী ফন্ট ডাউনলোড করার সেরা ৫ টি ওয়েবসাইট ।

হ্যাকিং প্রতিরোধে তৈরি করুন স্মার্ট পাসওয়ার্ড নিজেকে রাখুন সুরিক্ষত ।

টু স্টেপ ভেরিফিকেশন কি ? কিভাবে ফেসবুকে টু স্টেপ ভেরিফিকেশন চালু করবেন ।

ফেসবুক মেসেঞ্জারের নতুন সুবিধা আনসেন্ড মেসেজ সম্পর্কে বিস্তারিত ।

Leave a Response

MD Biplop Hossain
নিজের সম্পর্কে তেমন কিছু বলার নাই । আমি প্রতিনিয়ত নতুন কিছু শিখার বা জানার চেষ্টা করি এবং নিজের জানা ও শিখা বিষয় গুলো আপনাদের সাথে শেয়ার করে থাকি এই সাইট টির মাধ্যমে । "Learn And Share Your Knowledge"